কবিতা .... কবিতা .... কবিতা'


কবি ও কবিতা
আবুল হাসান আল মাহমুদ আহসান হাবীব উৎপলকুমার বসু কাজী নজরুল ইসলাম কালিদাস ক্লাসিক কবিতা জসীম উদ্দিন জীবনানন্দ দাশ জয় গোস্বামী তসলিমা নাসরিন তারাপদ রায় নরেন্দ্র দেব নির্মলেন্দু গুণ নীরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী পাবলো নেরুদা পুর্ণেন্দু পত্রী ফেদেরিকো গার্থিয়া লোরকা বাংলাদেশের সংবিধান বিনয় মজুমদার বিষ্ণু দে বুদ্ধদেব বসু ভালবাসা নিয়ে মলয় রায়চৌধুরী মহাদেব সাহা রফিক আজাদ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর রুদ্র মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ লালন ফকির শক্তি চট্টোপাধ্যায় শঙ্খ ঘোষ শহীদ কাদরী শামসুর রাহমান শার্ল বোদলেয়ার শ্রীজাত শ্রীরামকৃষ্ণ কথামৃত সত্যেন্দ্রনাথ দত্ত সমর সেন সুকান্ত ভট্টাচার্য সুকুমার রায় সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় সুভাষ মুখোপাধ্যায় সৈয়দ শামসুল হক হুমায়ুন আজাদ হেলাল হাফিজ

মঙ্গলবার, ১৪ ডিসেম্বর, ২০১০

ভালবাসার কবিতা

যাযাবর ভালবাসা – আহমেদ সালাহউদ্দিন সুপ্রিয়

এই সেই রাস্তা,
যেখানে হেঁটে হেঁটে বহুদূরে
হারিয়েছে কনো এক যুবক মাতাল।
বুকে তার ছিলনা কোন প্রেমের বাগান,
আথবা চায়নি সে আধখানা চাঁদ আর কুমারী রাত,
সিনায় সিনায়, রক্তে রক্তে উষ্ণ পরশ।
চেয়েছিল ছোট একচালা ঘর, এক মুঠো ভাত,
চেয়েছিল রোদেলা বিকেল আর আধখানা সিগেরেট,
একটু স্বাধীনতা, নিজেকে নিজের মতো সাজাবার।
যখন আকাশে নামে পূর্নিমা রাত,
পলকে পলকে যায় নির্ঘুম প্রহর,
স্মৃতির পলিতে জমে শিশির হাজার।
বলে দিয়ে যায় তারে,
হলো তো অনেক, কতো আর আবিচার নিজেরই ওপর,
পথ থাকে পথের পরে, তুমি পথচারি।
যতদুরে চলে যাও, নিয়ে যাবে সবই।
বদলাবে পৃথিবী, মানু্ষ, প্রতিদিনই।
বদলাবে কবে তুমি,
আঁকবে কবে ভোর, সোনালী সোপান।
চিৎকার দিয়ে বলে যুবক,
কবিতার কসম, ধ্বংস করে সবকিছু,
গড়ে নিব আবার নিজেরই আবাস,
যতই থাকিনা কেন বহুদুর,
একদিনতো শেষ হবেই দুর পরবাস।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন